মুক্তি আফরোজের রেসিপিতে বিয়ে বাড়ির বোরহানি! (ভিডিও সহ)

বোরহানিকে খুব মিস করছেন, কিন্তু সামনে কোনো বিয়ের দাওয়ার নেই তাই বোরহানি পান করতেও পারছেন না। কেনা বোরহানিতে বিয়ে বাড়ির মতো স্বাদটা পাওয়া যায় না মোটেই। তাই বলে কি অপেক্ষা করে থাকবেন বিয়ের দাওয়াতের জন্য? একদমই না! বিয়ে বাড়ির বোরহানি আপনার নিজের হেঁশেলেই আনতে পারবেন মুক্তি আফরোজের এই দারুণ রেসিপিটিতে।

রাঁধুনি হিসেবে মুক্তি আফরোজের খ্যাতি মূলত ইউটিউবে। ২৫ হাজারেরও বেশি সাবস্ক্রাইবার রয়েছে তার কুকিং চ্যানেলটিতে। দেশী বিদেশি বিভিন্ন রান্নার রেসিপি আছে এখানে। মূলত কম ঝামেলায় এবং কম উপকরণেই দারুণ স্বাদ পাওয়া যায় এমন সব রেসিপিই তিনি পছন্দ করেন। পেশায় তিনি গৃহিণী, আর হরেক রকমের রান্নার পেছনে অনুপ্রেরণার জায়গাটা তার পুত্রসন্তানের। তার জন্য রান্না করতে গিয়েই মুলত তার রান্নাবান্নার শুরু। শর্টকাটে বিভিন্ন এক্সক্লুসিভ খাবার ঘরে তৈরি করতেও তিনি পছন্দ করেন। চলুন দেখে নিই তার বোরহানির রেসিপিটি-

উপকরণ

– দেড় কাপ টকদই (পানি ঝরানো)

– এক চা চামচ ভাজা জিরা গুঁড়া

– হাফ চা চামচ সাদা গোলমরিচ গুঁড়ো

– হাফ চা চামচ আদা বাটা

– এক চা চামচ সাদা সরিষা বাটা

– এক চা চামচ ধনেপাতা বাটা

– এক চা চামচ পুদিনা পাতা বাটা

– এক চা চামচ কাঁচামরিচ বাটা

– সিকি চা চামচ বিট লবণ

– দুই টেবিল চামচ চিনি

– সামান্য লবণ

– এক কাপের তিনভাগের এক ভাগ পানি

প্রণালী

১) প্রথম টকদইটাকে ঘন করে নিতে হবে। এর জন্য একটা সুতি কাপড়ে বেঁধে কিছুক্ষণ ঝুলিয়ে রাখতে হবে যাতে পানি ঝরে যায়।

২) এবার একটি পাত্রে টকদইটাকে নিন। এতে যোগ করুন ভাজা জিরা গুঁড়ো, সাদা গোলমরিচ গুঁড়ো, আদা বাটা, সরিষা বাটা, ধনেপাতা বাটা, পুদিনা পাতা বাটা, কাঁচামরিচ বাটা এবং বিট লবণ। এতে দুই চা চামচ চিনি এবং লবণ যোগ করুন। চিনি ও লবণ নিজের স্বাদমতোও যোগ করতে পারেন।

৩) এক্ষেত্রে আপনার মনে রাখতে হবে যে, এই রেসিপিতে যেসব উপকরণ বাটা ব্যবহার হচ্ছে, সেগুলো খুবই মিহি করে বাটতে হবে।

৪) একটি ডাল ঘুঁটনি বা হ্যান্ড হুইস্ক দিয়ে সবকিছু খুব ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। ব্লেন্ডারও ব্যবহার করতে পারেন।

৫) দইয়ের সাথে সব মশলা ভালো করে মিশে গেলে এরপর এতে পানি যোগ করুন। পানি ভালোভাবে মিশে গেলে এবার ফ্রিজে রাখতে পারেন।

ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা পরিবেশন করুন বিয়েবাড়ির মতোই ঘন বোরহানি। দেখে নিতে পারেন রেসিপির ভিডিওটি-